টেংরা মাছের কারি রেসিপি.ও চিতল মাছের কোপ্তা কারি

নানা পদের মাছ খেতে কে না ভালবাসে! বাংলাদেশ একটি নদী মাত্রিক দেশ এবং আমরা সবাই মাছে ভাতে বাঙ্গালী! কিন্তু কত দিন আর এক রকম মাছ খাব? সেই একি তরকারি? আজকে চলুন চিতল মাছের কোপ্তা কারি রান্না করার একটি ভিন্ন পদ্ধতি জেনে নেই।



উপকরণ:

১টি মাঝারি আকারের চিতল মাছ
১ চা-চামচ পেঁয়াজ
১ চা-চামচ আদা
১ চা-চামচ ধনেবাটা
১ টেবিল চামচ বাটা কাজুবাদাম
২ চা-চামচ ঘি
১ চা-চামচ কেওড়া জল
২ কাপ দুধ
১ টেবিল চামচ মিষ্টি ও টক দই
১ টেবিল চামচ টমেটো সস
১ টেবিল চামচ চিনি
১ টেবিল চামচ লবণ
প্রয়োজনমতো কিশমিশ
সামান্য এলাচ ও দারচিনি

প্রনালিঃ

চিতল মাছটির কাঁটা বেছে তাতে স্বাদমতো জিরা, লবণ, গোলমরিচের গুঁড়া ও ১ টেবিল চামচ বেসন দিয়ে নিন। তারপর কাঁচা মরিচ ও পেঁয়াজ কুচি দিয়ে মেখে কোপ্তার আকারে গোল করে ভেজে নিতে হবে। ঘি গরম করার পর অল্প দুধ দিয়ে সব মসলা কষানো শেষে, দুধ দিয়ে তিন-চার মিনিট রান্না করুন।ভাজা কোপ্তা দিয়ে ওপরে হালকা কিশমিশ দিয়ে অল্প আঁচে এক মিনিট রেখে দিন, এবার ঘি ওপরে উঠে এলে নামিয়ে ফেলুন।



টেংরা মাছের কারি রেসিপি

উপকরণঃ

- মাঝারি ট্যাংরা মাছ ৫০০ গ্রাম
- মাঝারি পেঁয়াজ ২টা কুঁচোনো
- রসুন কুচি ১ চা চামচ
- হলুদ ১ চা চামচ
- মরিচ ১ চা চামচ (ঝাল কম খেলে কম দেবেন, বেশি খেলে বেশি)
- জিরা গুড়ো ১ চা চামচ
- কাঁচামরিচ ৪/৫টি অল্প চেরা
- ধনেপাতা কুচি
- লবণ
- তেল আন্দাজ মত।

প্রণালীঃ

প্যানে তেল গরম করে লবন দিয়ে পেঁয়াজ, রসুন হালকা বাদামি করে ভেজে নিন। ২ কাপ পানি দিয়ে হলুদ, মরিচ, জিরা দিয়ে তেল ওঠা পর্যন্ত কষান। মাছে লবন দিয়ে ভালো করে কচলে ধুয়ে রাখুন। মসলা কষানো হলে মাছ দিয়ে একটু নেড়েচেড়ে দিন। পানি এমন আন্দাজে দিন যাতে নামানোর সময় ছবির আন্দাজে ঝোল থাকবে। মানে পাত্রে ঝোল মাছের সমান সমান হবে। আবার আপনার ইচ্ছে হলে ঝোল বেশীও রাখতে পারেন।
প্যানে ঢাকনা দিয়ে আগুন মাঝারি আঁচে রাখুন। মিনিট দশেক পরে কাঁচামরিচ, ও ধনেপাতা ছড়িয়ে নামিয়ে নিন। বেশি জ্বাল দিলে মাছ ভেঙ্গে যাবে।