মাতৃ দিবস

আজ ৮ই মে। বিশ্ব মাতৃ দিবস। হিসাব অনুসারে মে মাসের ২য় রবিবার মা দিবস পালন করা হয়। মাকে কে কে ভালোবাসেন? এই প্রশ্নটা করলে আমি কতোটা হেয় হবো জানা আছে। মা কে ভালোবাসেনা এমন মানুষের সংখ্যা হয়তো নিতান্তই কম। ফেসবুক ব্যবহারকারীরা ২ ভাগে বিভক্ত। একদল মাতৃ দিবসের পক্ষে! অন্যদল বিপক্ষে। বিপক্ষে ঠিক বলবোনা। তাদের কথায় ও যুক্তি আছে। তারা বলতে চাচ্ছে বছরের ৩৬৫ দিনই আমরা মা কে ভালোবাসি। তাহলে একটা দিন এতো নাটকীয়তার কি প্রয়োজন?!

মাকে ফেসবুকে প্রেম দেখায়ে লাভ কি? মন থেকে ভালোবাসলেই হলো। এতো দেখানোর কি আছে? আমি মা কে ভালোবাসি এটা পৃথিবীর সামনে চেঁচিয়ে বললেই কি আমার ভালোবাসা প্রমাণিত হবে? কারোর যুক্তি খন্ডানোর নয়। যে যে যার যার জায়গায় একদম ঠিক।



একদিকে এটা যেমন ঠিক যে ভালোবাসা যেমন দেখানোর বিষয় নয় তেমনি অপরদিকে এটাও ঠিক যে আমরা চাইলেই যখন তখন মাকে মুখ ফুটে বলতে পারিনা। শুধু বলতে পারিনা এটাই আমাদের ব্যর্থতা। এই ব্যাপারগুলো বেশিরভাগ ঘটে থাকে মধ্যবিত্ত পরিবারে। তারা এতোটাই সীমাবদ্ধতার মধ্যে বড় হয় যে তাদের ভালোবাসার প্রকাশ টাও সীমাবদ্ধ। তারা হাজার চাইলেও মা বাবা কে ভালোবাসি বলতে একপা এগিয়ে আবার দশ পা পিছিয়ে আসে।

মধ্যবিত্ত পরিবারের সবকিছু এতোটাই কন্ট্রোলে থাকে যে কখন আমাদের ইমোশন গুলোও আমরা কন্ট্রোল করা শিখে যাই। আপনি বলতে পারছেন না তার মানে এই নয় যে আপনি আপনার মা কে ভালোবাসেন না। আবার আপনি বলতে পারেন তার মানে এই নয় যে আপনি লোক দেখানো কাজ করেন। বলতে পারা, না পারা সবটাই স্বাভাবিক।