পোস্টগুলি

March, 2015 থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

দোল পূর্ণিমা

ছবি
আজ দোল পূর্ণিমা। গগনে আজ পূর্ণচন্দ্রের উদয় সন্ধ্যা হতে। সেই স্নিগ্ধ চন্দ্রালোকে জ্যোৎস্নায় প্লাবিত ভুবন। যারা লক্ষ্মীর পাঁচালি পড়েন বা যারা শুনেছেন তারা জানবেন লক্ষ্মীর পাঁচালি শুরু এই দোল পূর্ণিমা তিথিকে নিয়ে। পাঁচালি তে লেখা আছে দোল পূর্ণিমার নিশি নির্মল আকাশ। মৃদুমন্দ বহিতেছে মলয় বাতাস।স্বর্ণসিংহাসনে বসি লক্ষ্মীনারায়ণ। কহিতেছেন নানা কথা সুখে আলাপন।

দেবী লক্ষ্মীর পাঁচালি এই দোল পূর্ণিমা ঘিরে। এরপর দেবর্ষি নারদ মুনি সবিস্তারে মর্তের দুর্ভিক্ষ, অনাচার জানালে দেবী হরিপ্রিয়া লক্ষ্মী দেবী তার প্রতিকারের ব্যবস্থা করেন। সুদুর বৈকুণ্ঠে থেকে নয়, মা নিজে নেমে আসেন এই ধরিত্রীতে। এখান থেকেই দেবী লক্ষ্মীর মাহাত্ম্য শুরু।

দেবী লক্ষ্মী শ্রী, ধন, সম্পদ, ঐশ্বর্য, সৌভাগ্য এর দেবী। তিনি এগুলির পূর্ণ বিকাশ ঘটান। তাইতো মর্তলোকে দেবী লক্ষ্মীর এত আরাধনা। পূর্ণ বিকাশ ঘটান বলে দেবী লক্ষ্মী পূর্ণ ভাবে প্রস্ফুটিত পদ্ম পুস্পে বিরাজিতা। তিনি হস্তে প্রস্ফুটিত বিকশিত পদ্ম ধারন করেন। অমাবস্যার পরদিন প্রতিপদ হতে শুক্ল চতুর্দশী অবধি চন্দ্র একটু একটু করে বিকশিত হতে থাকে, পূর্ণিমাতে পূর্ণ বিকশিত হয়ে যায়। দেবী লক্ষ্মী …

মনোময় মহীশূর

কর্নাটকের এই সাংস্কৃতিক রাজধানীতে দেখার জিনিসের কোনও অভাব নেই। কয়েকটা দিন অনায়াসে কাটিয়ে আসতে পারেন। শহর ঘোরার একটা আলাদা আনন্দ থাকে। বিশেষ করে পায়ে হেঁটে ঘুরতে পারলে তো কথাই নেই। একটা শহর গড়ে ওঠার পিছনে থাকে কতই না জানা অজানা ইতিহাস। কর্নাটকের এই সাংস্কৃতিক রাজধানীতে দেখার জিনিসের কোনও অভাব নেই।

মহীশূর শহরটি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন। শহর সফরের তালিকায় প্রথমেই রাখুন মাইসোর প্যালেস। বিশাল এই প্যালেসটি বাইরে থেকে দেখেই মুগ্ধ হতে হয়। তবে বলে রাখি ছবি তুলতে চাইলে প্যালেসের বাইরে থেকেই যত খুশি ছবি তুলে নিন, কারণ প্যালেসের ভিতরে ক্যামেরা নিয়ে প্রবেশ নিষেধ। ভিতরে ঢুকতেই অসাধারণ আর্কিটেকচার এবং রয়্যাল অ্যান্টিক কালেকশন দেখে মন ভরে ওঠে। দেখুন অপূর্ব কারুকার্য করা গোলাপ কাঠের দরজা।

দরজাও যে এত সুন্দর হতে পারে তা নিজের চোখে না দেখলে বিশ্বাস হত না। সিলিংয়ের দিকে তাকালে অবাক হতে হয়। সম্পূর্ণ সিলিং আইভরির কাজ করা। এছাড়া রয়েছে মার্বেলর অপূর্ব সব স্ট্যাচু আর অসাধারণ পেন্টিংয়ের কালেকশন। ন্যশনাল হলিডেতে সন্ধেবেলা এই প্যালেস সেজে ওঠে এক লক্ষ আলোক মালায়। মাইসোর প্যালেস তখন এক অন্য রূপে সেজে ওঠে। পরবর্তী গন্তব…

আই. টি. সি.

ছবি
ইংরেজের শাসনের অধীনে থেকে ও ঔপনিবেশিক সুবিধা নিয়ে ইম্পেরিয়াল টোবাকো কোম্পানি তামাক চাষ করবার জন্য ১৯২০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। হেডকোয়ার্টার হয় পশ্চিম বাংলার কলকাতা। এটি একটি কনগ্লোমেরেট। অর্থাৎ একই কোম্পানির অধীনে এনে অধিক মুনাফার সুবিধা পাবার জন্য দুই তিনটি করপোরেশান – যারা বিভিন্ন ধরনের ব্যবাসা করে – তাদের একজায়গায় একত্রিত করে ব্যবসা।

হোটেল, নানান ধরণের পণ্য উৎপাদন, পেপারবোর্ড, প্যাকেজিং, ইনফরমেশান টেকনলজি এবং সর্বোপরি তামাক চাষসহ নানান এগ্রোবিজিনেসে এই মাল্টি-ইন্ড্রাস্ট্রি কনগ্লোমেরেট জড়িত। প্রধান ব্যবসা তামাক। নামেও যেমন তেমনি কাজেও তেমন তামাক চাষের সাম্রাজ্য কায়েম ইম্পেরিয়াল টোবাকো কম্পানি।

উনিশশ সত্তর সালে কোম্পানিটির নাম পরিবর্তন করা হয়: ইন্ডিয়ান টোবাকো কম্পানি লিমিটেড। আবার ১৯৭৪ সালে শুধু আই. টি. সি. লিমিটেড। নামের মাঝখানের ফুলস্টপ তুলে দেওয়া হয় ২০০১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। দুই হাজার বারো-তেরো অর্থ বছরে আইটিসির বাৎসরিক আয় দাঁড়ায় ৮.৩১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।



ভারতের সিগারেট ব্যবসার ৮১ ভাগ আইটিসি লিমিটেডের নিয়ন্ত্রণে। তাদের প্রধান প্রধান ব্রান্ডগুলো খুবই পরিচিত। দিল্লীতে ১৯৭১ সালে আইটি…

নাইট ক্রিম বানানোর টিপস

ছবি
বহুপ্রতীক্ষিত নাইট ক্রিম বানানোর টিপস

প্রথমেই উপকরণ গুলো দেখে নিই

১। আমন্ড অয়েল (১/৪ কাপ)
২। একটি আপেল (খোসা সহ)
৩। এলোভেরা জেল (এলভেরা থেকে সহজেই নেয়া যায়) ২ চা চামচ
৪। গোলাপ জল (১/৪ কাপ)
৫। লেবুর/কমলার রস (২ চা চামচ)
৬। চন্দন গুড়ো (২ চা চামচ) (আড়ং এর চন্দনগুঁড়া ব্যাবহার করতে পারেন)

বিচি ফেলে খোসা সহ আপেল ব্লেন্ড করে নিন। বাটিতে নিয়ে লেবু/ কমলার রস বাদে সব উপকরন মিক্স করে নিন চামচ দিয়ে।একটা পাত্রে পানি গরম করুন। পানি ফুটে উঠলে পানির ওপরে আরেকটি পাত্রে এই মিশ্রণটি রেখে গরম করুন। অনেকটা চকলেট যেভাবে গলান, সেভাবে।

মিশ্রণটি ভাল মতন গরম হবে, তবে খেয়াল রাখবেন একেবারে উত্তপ্ত যেন না হয়েযায়। মিশ্রণটা বেশ ঘন হয়ে আসবে।তখন নামিয়ে ফেলে ভালো ভাবে নেড়ে ঠাণ্ডা করুন। এখন রেখে দেয়া লেবুর/কমলার রস চামচ দিয়ে মিশ্রণটির সাথে মিশিয়ে নিন ভাল ভাবে।

কৌটায় ভরে ফ্রিজে রেখে ব্যবহার করুন। হয়ে গেল সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদানে আপনার নিজের হাতে তৈরী নাইট ক্রিম। ২ সপ্তাহ ব্যাবহারে অনেক ভাল রেজাল্ট পাবেন। আমাদের ত্বক খুবই সেনসিটিভ। রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার যত কম করা যায় ততই ত্বক ভালো থাকবে। নাইট ক্রিম সারা রাত ত্বকে দ…